"> রেলওয়ের টিকিট কিনুন অ্যাপের মাধ্যমে – Nurunnaby Chowdhury

রেলওয়ের টিকিট কিনুন অ্যাপের মাধ্যমে

124 0

রেলে ভ্রমণ করতে চাইলে এখন আর দীর্ঘ লাইন ধরে টিকিট কাটতে হয় না। সহজে ঘরে বসেই বাংলাদেশ রেলওয়ের টিকিট কেনা যায়। অ্যাপের সাহায্যেই পছন্দসই টিকিট কেনার সুবিধাটি এখন যে কোন গ্রাহকই নিতে পারবেন। বাংলাদেশ রেলওয়ে আনুষ্ঠানিক ভাবে রেল সেবা নামের অ্যাপটি চালু করেছে গ্রাহকদের এমন সুবিধার জন্য। অ্যাপটি ডাউনলোড করে নিজের মোবাইল নম্বর ও জাতীয় পরিচয় পত্রের নম্বর দিয়ে নিবন্ধন করে নিলেই কিনতে পারবেন টিকিট। নিবন্ধন শেষ হয়ে গেলে মোবাইল নম্বর ও নিজের পছন্দসই পাসওয়ার্ড দিয়ে লগ-ইন করা যাবে।

শুধু টিকিট কেনাই নয় ট্রেনের যাত্রাপথের বিস্তারিত তথ্যও জানা যাবে অ্যাপটির মাধ্যমে। টিকিটের দাম পরিশোধ করা যাবে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে। এক্ষত্রে যেকোনও ভিসা কার্ড, মাস্টার কার্ড, এমেক্স কার্ড, বিকাশ, ডাচ-বাংলা নেক্সাস কার্ড ও রকেটের মাধ্যমে অর্থ পরিশোধ করা যায়। একজন নিবন্ধিত ব্যবহারকারী সর্বোচ্চ চারটি টিকিট কিনতে পারবেন। একদিনে দুইবার করে সর্বোচ্চ আটটি টিকিট কিনতে পারবেন একজন ব্যবহারকারী।

যেভাবে টিকিট কাটবেন

অ্যাপটিতে মোবাইল নম্বর ও পাসওয়ার্ড লগ-ইন করে টিকিট কাটতে চাইলে শুরুতে পারচেজ অপশনে যেতে হবে। এ অপশন থেকে কোন রুটে কখন কোন ট্রেন চলে বা সে ট্রেনটি কোন কোন স্টেশনে থামবে এ বিষয়গুলো জানা যাবে। তবে টিকিট কেনার আগে এসব তথ্য জানার জন্য রয়েছে ইনফরমেশন নামে একটি অপশন। সেখানে কোন স্টেশন থেকে কোথায় যেতে চান তা নির্বাচন করে ভ্রমণের তারিখ উল্লেখ করলেই সেদিন কোন কোন ট্রেন উক্ত পথে যাবে তার বিস্তারিত জানা যাবে।

তথ্য জানার পর টিকিট কাটতে চাইল পারচেজ অপশন থেকে কোন স্টেশন থেকে কোথায় যেতে চান তা নির্বাচনের পর তারিখ ঠিক করুন। তারপর সংশ্লিষ্ট স্টেশনে যে ট্রেনগুলোর চলে সেগুলোর বিস্তারিত জানা যাবে। সেখানে দুটি অপশন আছে। একটি হচ্ছে যেকোন আসন, অন্যটি হলো পছন্দসই আসন। ভ্রমণের কয়েকদিন আগে টিকিট কাটলে পছন্দসই আসন দেখে কেনা যায়। অ্যাপটির মাধ্যমে যেদিন ব্যবহার করবেন সেদিন থেকে পরবর্তী ১০ দিনের তথ্য ও টিকিট কাটা যায়। তালিকায় থাকা ট্রেনের সময় দেখে পছন্দসই অপশন থেকে কোন ক্লাস বা শ্রেণিতে যেতে চান সেটি নির্বাচন করুন। সাধারণত এসি, সিট, স্নিগ্ধা ও চেয়ার নামের চারটি অপশন থাকে। শ্রেণি অনুযায়ী টিকিট কাটতে চাইলে তা নির্বাচন করে কয়টি টিকিট কিনতে চান তা নির্বাচন করুন। আপনার সাথে যদি শিশু থাকে তাহলে পরের অপশনে তা নির্বাচন করুন। কারণ শিশুদের ক্ষেত্রে দামের ভিন্নতা রয়েছে। তবে এক্ষেত্রে আপনার শিশু যদি একা সিটে বসতে পারে তবেই কেবল শিশুদের জন্য টিকিট কেনার অপশনে ক্লিক করবেন।

এরপর বাই অপশনে ক্লিক করলেই আপনার সব তথ্য চলে আসবে। টিকিট মূল্য, ভ্যাট ও ব্যাংকের চার্জসহ পুরো অর্থের বিস্তারিত দেখা যাবে এ অপশনে। এখানে অর্থ পরিশোধের জন্য পে নাউ অপশনে ক্লিক করে আই এগ্রি-তে ক্লিক করতে হবে। পরের অপশনে গিয়ে কোন মাধ্যমে অর্থ দিতে চান তা নির্বাচন করতে হবে। টাকা দেওয়া হয়ে গেলে আপনার নিবন্ধিত ই-মেইলে টিকিট নিশ্চিতকরণ সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য চলে আসবে। একই তথ্য অ্যাপের হিস্ট্রি অপশনেও পাবেন। ভ্রমণের সময় ই-মেইলে যাওয়া অংশটুকু প্রিন্ট করে সঙ্গে রাখলে ভালো।

টিকিট কেনা ও তথ্য জানার পাশাপাশি এই অ্যাপে ট্রেনে কোন খাবার খেতে চাইলে সে সম্পর্কিত তথ্য পাওয়া যাবে। এছাড়া পছন্দসই খাবারের অর্ডারও দেওয়া যাবে। এছাড়া চাইলেই ট্রেনের অবস্থান যেমন জানা যাবে তেমনি যে ট্রেনে যাবেন তা দেখতে কেমন ও কমেন্ট করার অপশনসহ দেশের বিভিন্ন রেলস্টেশনের নম্বর পাওয়া যাবে। যেদিন আপনার ভ্রমণের তারিখ সেদিন অ্যাপ থেকেই ট্রেন শুরু হওয়ার সময়টির নোটিফিকেশন পাবেন।

অ্যাপটি ডাউনলোড করার ঠিকানা: রেল সেবা

Leave a Reply